কম্পিউটারকে কিভাবে ব্যবহার করা উচিত?

আমরা যখন আমাদের কম্পিউটার অনেক বেশী সময় ব্যবহার করি তখন চিন্তা করি অনেক সময় কম্পিউটার অন আছে, এই বুঝি আমার কম্পিউটার নষ্ট হয়ে গেলো। আসলে আমাদের কম্পিউটারকে ২৪ ঘন্টা অন রাখলে বা কয়েক ঘন্টা অন রেখে ব্যবহার করলে আপনার কম্পিউটারে কোনো সমস্যা হবে কিনা সেটা নিয়েই আজকে আলোচনা করবো এই ব্লগে।




সুতরাং প্রথমেই বলা ভালো, কম্পিউটার যদি আপনি সপ্তাহে ৭ দিন এবং ২৪ ঘন্টা অন রাখেন বা ব্যবহারের প্রয়োজনে অন করলেন এবং প্রয়োজন শেষ হলেই অফ করে দিলেন, আপনি যেকোন ভাবে কম্পিউটার ব্যবহার করতে পারেন, কোন সমস্যা হবেনা। তবে শুধুমাত্র এটুকুতেই ব্লগ শেষ নয়, কারন কিছু ভালো এবং খারাপ দিক সব কিছুতেই থাকে। তাই কম্পিউটার ব্যবহার করবেন কিভাবে? ২৪/৭ অন রাখবেন নাকি প্রয়োজনে অন করবেন এবং প্রয়োজন ফুরালে অফ করবেন এই বিষয়টা বিস্তারিত আলোচনা করতে যাচ্ছি।

প্রথমত কারা এবং কেন কম্পিউটারকে ২৪ ঘন্টা অন রাখবেন?
সুতরাং আমি প্রথমেই বলেছি আপনি আপনার কম্পিউটারকে 24 ঘন্টায় অন রেখে ব্যবহার করতে পারবেন। 24 ঘন্টা অন থাকার ফলে আপনার কম্পিউটার অফ বা অন করার প্রয়োজন হচছে না। কম্পিউটার যখন অন করা হয় তখন আপনার কম্পিউটার একটা হিট জেনারেট করে যেটা কম্পিউটারের জন্য অনেক খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। হিট কম্পিউটার এবং সকল ইলেকট্রিক ডিভাইস এর জন্য অনেক খারাপ। সুতরাং আপনার কম্পিউটার অফ বা অন করার সময় যে হিট উৎপন্ন হচ্ছে, 24 ঘন্টা অন থাকলে সেই টা হবে না। কম্পিউটার অন করার সময় অন হতে কিছুটা সময় নেয় এবং কম্পিউটার রেডি হতে কিছুটা সময় দরকার হয় যেটা অনেক বিরক্তিকর একটা ব্যাপার। এখন আপনি যদি একজন গেমার হয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনার কম্পিউটার থেকে বড় বড় সাইজের গেম ডাউনলোড করতে হয়, সেক্ষেত্রে আপনার কম্পিউটারকে 24 ঘন্টা অন রাখার প্রয়োজন পড়তে পারে। যাদের মোটামুটি ৫ থেকে 7 ঘণ্টা কম্পিউটার প্রয়োজন পড়ে তাদের জন্য কম্পিউটার সবসময় অন করে রাখাই ভালো। তবে চব্বিশ ঘন্টা কমপিউটার অন রাখার কিছু অপকারিতাও রয়েছে, যেমনঃ কম্পিউটারের এসএসডি, হার্ড ড্রাইভ, ডিস্ক ড্রাইভ, ইত্যাদির একটা বয়স সীমা রয়েছে, এগুলো নির্দিষ্ট একটা সময় পর্যন্ত চলতেই সক্ষম। আপনার কম্পিউটারের এলসিডি প্যানেল কে যদি ২৪/৭ ঘন্টা অন রাখেন তবে সেটা মাত্র ২ বছর পর্যন্তই ভালো থাকবে। এছাড়া যদি বাসা বা অফিসে বিদ্যুৎ সমস্যা থাকে তবে কম্পিউটার ২৪/৭ ঘন্টা ব্যবহার না করায় ভালো হবে, কারন পাওয়ার কম বেশী হলে কম্পিউটারের পাওয়ার সাপ্লাই, মাদারবোর্ড ও র‍্যামে সমস্যা হতে পারব, এবং হার্ড ড্রাইভে ব্যাড সেক্টর তৈরি হওয়ার সম্ভবনা অনেক বেশী।
এখন কথা বলি রেগুলার কম্পিউটার ইউজারদের নিয়ে।
আপনি যদি দিনের কিছুটা সময় (যেমন ২-৩ ঘন্টা) কম্পিউটার ব্যবহার করে থাকেন তাহলে ব্যবহার শেষে কম্পিউটার অফ করে দেওয়ায় ভালো হবে।
এখন আসি আমি কিভাবে কম্পিউটার ব্যবহার করি?
well, আমি একজন হেবি কম্পিউটার ইউজার ছিলাম, এখনো আছি কিন্তু আগের তুলনায় অনেক কম। যেহেতু আমি একটা জব করি আমাকে দিনের বেশীর ভাগ সময়ই অফিসে কাটাতে হয়। শুধুমাত্র রাতেই আমি কম্পিউটার ব্যবহার করি। সো আমার যতটুকু কম্পিউটার ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে ততটুকু সময়ই অন করে রাখি, তবে রাতে যদি কোন কাজ ইনকমপ্লিট অবস্থায় থাকে তাহলে পরের দিন রাতে সেটা কমপ্লিট করেই কম্পিউটারকে অফ করি। এতে আমার সময় কিছুটা সেভ হয়।
এখন আপনারা চাইলে আপনার কম্পিউটারকে ২৪/৭ অফ রাখতে পারেন আবার চাইলে প্রয়োজনে অন করে আবার অপ্রয়োজনে অফ করেও দিতে পারেন। কোনটাতেই বড় কোন সমস্যা নেই। তবে ২৪/৭ অন রাখার ক্ষেত্রে অবশ্যই একটা আইপিএস বা ইউপিএস ব্যবহার করবেন যেন ইলেকট্রিক পাওয়ার এর কারনে আপনার কম্পিউটারের কোন সমস্যা না হয়।
আশা করি বিষয় টা বুঝতে পেরেছেন। কোন কিছু বুঝতে সমস্যা হলে ফেসবুকে আমাকে ম্যাসেজ করতে পারেন এবং কমেন্ট সেকশনে আমাকে জানাতে পারেন। আর এই পেজটি আপনার ফেসবুকে শেয়ার দিয়ে রাখতে পারেন যাতে আপনার ফ্রেন্ডসরা ও বিষয়টার বিস্তারিত জানতে পারে।
ধন্যবাদ
ব্লগারঃ শাহীন আলম

Post a Comment

0 Comments